New to Nutbox?

কুসংস্কারাচ্ছন্ন গ্রামীণ সমাজ

2 comments

raintears
70
last monthSteemit2 min read

কেমন আছেন বন্ধুরা? আমি ভালো আছি। আশাকরি আপনারা ও ভালো আছেন।


হাজার বছর ধরে আমাদের দেশের মানুষের মাঝে নানা রকম কুসংস্কার বিরাজ করছে। যদিও এখন শিক্ষার আলোর কারণে মানুষের ভেতর কুসংস্কারের পরিমাণ আগে থেকে অনেক কমেছে। বিশেষ করে শহর অঞ্চলের মানুষ এখন আর তেমন একটা কুসংস্কার মানে না। তবে গ্রামাঞ্চলের মানুষ এখনো নানা রকম কুসংস্কারের বিশ্বাস করে। তার প্রমাণ পেলাম আজকে আজকে পত্রিকা দেখতে গিয়ে। খুবই হাস্যকর একটা বিষয় চোখে পড়লো। রাজশাহীর কোন এক গ্রামের মানুষ বৃষ্টির জন্য ব্যাঙের বিয়ের আয়োজন করেছে। তাদের বিশ্বাস ব্যাঙের বিয়ের আয়োজন করলে সেখানে বৃষ্টি হবে। মানুষ এই সময়ে এসেও এই ধরনের বিশ্বাস রাখতে পারে সেটা চিন্তা করে আমি হতবাক হয়ে গিয়েছি।

এই অকাল মৃত্যুর পেছনে দায়ী কে_20240423_145133_0000.png

পৃথিবীর মানুষ যেখানে মঙ্গল গ্রহে পৌঁছে যাওয়ার চেষ্টা করছে সেখানে এরা বৃষ্টির জন্য ব্যাঙের বিয়ের আয়োজন করেছে। এশিয়ার অনেক দেশেই তো এখন বৃষ্টি নামানোর জন্য ক্লাউড সিডিং প্রযুক্তির ব্যবহার করা হয়। আর সেই জায়গায় আমরা এখনো ব্যাঙের বিয়ে নিয়ে পড়ে রয়েছি। এই ধরনের কুসংস্কারে বিশ্বাস করা থেকে আমাদেরকে বেরিয়ে আসতে হবে। লোকজনকে বোঝাতে হবে কুসংস্কারে বিশ্বাস না করে বেশি করে বৃক্ষরোপণ করুন। সেটা পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করতে সহায়তা করবে। এই সমস্ত কুসংস্কারে বিশ্বাস করার কারণে যেটা হয় মানুষ তার আসল করণীয় থেকে সরে আসে। ভুলভাল কাজের পেছনে সময় ব্যয় করতে শুরু করে।


ধরুন যে গ্রামে এই ব্যাঙের বিয়ের আয়োজন করা হয়েছে। সেই গ্রামের শিক্ষিত সমাজ যদি এগিয়ে আসতো। তারা যদি তাদেরকে বোঝাতো এই ধরনের কুসংস্কারাচ্ছন্ন কাজে জড়িত না হয়ে আমরা সকলে মিলে বৃক্ষরোপণ শুরু করি। তাহলে এই অঞ্চলে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ বাড়বে। তাহলে কিন্তু সেই লোকগুলো সচেতন হতে পারতো। যাইহোক আমরা চেষ্টা করবো আমাদের আশেপাশে এই ধরনের কুসংস্কারে বিশ্বাসী লোকজন দেখলে তাদেরকে বোঝাতে যাতে করে তারা এই কুসংস্কারে বিশ্বাস করা থেকে বেরিয়ে আসে।

আজকের মত এখানেই শেষ করছি। পরবর্তীতে আপনাদের সাথে দেখা হবে অন্য কোন নতুন লেখা নিয়ে। সে পর্যন্ত সবাই ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন।



ধন্যবাদ

Comments

Sort byBest