New to Nutbox?

বৈষম্য সর্বত্র

0 comments

heartwarming
72
last monthSteemit3 min read

কেমন আছেন বন্ধুরা? আমি ভালো আছি। আশাকরি আপনারা ও ভালো আছেন।


গত কয়েকদিন ধরে আমাদের এই পুরো অঞ্চলে যে তীব্র তাপদাহ বয়ে যাচ্ছে সেটা নিয়ে আর নতুন করে কিছু বলার নেই। এই তাপদাহে সকলেরই প্রাণ অতিষ্ট প্রায়। তবে এর ভেতরে কিছুটা স্বস্তির ব্যাপার হচ্ছে লোডশেডিং এর পরিমাণ একেবারেই কমে গিয়েছে। যদিও এবার গরম আসার আগে আমি খুবই চিন্তিত ছিলাম লোডশেডিং নিয়ে। ধারণা করেছিলাম এবার ব্যাপকভাবে লোডশেডিং হবে। কারণ দেশে ডলারের সংকট ছিলো। আর বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য কয়লা আমদানি করতে হলে ডলারের প্রয়োজন। সে কারণেই চিন্তা করেছিলাম বাংলাদেশ সময় মতো হয়তো কয়লা আমদানি করতে পারবে না। যাইহোক শেষ পর্যন্ত কোনোভাবে হয়তো সরকার এই সমস্যার সাময়িক কোনো সমাধান করতে পেরেছে। তো আজকের পত্রিকার পাতার খবর দেখে বুঝতে পারলাম বিদ্যুৎ নিয়ে আমরা যতটা স্বস্তিতে ভুগছি সবাই ততটা স্বস্তিতে নেই।

Black and Gold Fancy New Year Card_20240423_114323_0000.png

কারণ শহর অঞ্চলে বিদ্যুৎ থাকলেও গ্রামাঞ্চলে বিদ্যুৎ থাকছে না বললেই চলে। কোনো কোনো অঞ্চলে দিনে ১০-১২ ঘন্টার উপরে লোডশেডিং হচ্ছে। কোনো কোনো জায়গায় নাকি এর থেকেও বেশি হচ্ছে। আমাদের দেশে এখনো বিপুল সংখ্যক মানুষ গ্রামে বসবাস করে। সেই বিপুল সংখ্যক মানুষ এখনো নামমাত্র বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় এসেছে। কারণ তাদের ঘরে বিদ্যুতের লাইন থাকলেও দিনের বেশিরভাগ সময় বিদ্যুৎ থাকে না। অবশ্য এই সমস্যাটা নতুন নয়। পল্লী বিদ্যুতের গ্রাহকরা দীর্ঘদিন থেকেই বিদ্যুৎ নিয়ে অভিযোগ করে আসছে। তবে এই প্রচন্ড গরমে সেই অভিযোগের মাত্রা বেড়েছে বহুগুণ। অসহনীয় এই গরমে বিদ্যুৎ ছাড়া আসলেই টিকে থাকা মুশকিল। পত্রিকার পাতায় খবরটা পড়ার পরে বুঝতে পারলাম সরকার গ্রামাঞ্চলে বিদ্যুৎ সরবরাহ কমিয়ে শহর অঞ্চলে বিদ্যুৎ সরবরাহ স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করছে। আমাদের দেশের মানুষের ভেতর নানা রকমের বৈষম্য রয়েছে। সেই বৈষম্যটা এখানেও চোখে পড়ছে। শহরের মানুষ গ্রামের মানুষদের তুলনায় বেশি সুবিধা ভোগ করছে।


তবে এই অবস্থা কারোরই কাম্য নয়। সরকার যদি সময়মতো পরিকল্পিত সিদ্ধান্ত গুলো নিতে পারতো তাহলে আজকে আমাদের এই সমস্যাটা হোতো না। কুইক রেন্টাল নামের টাকা অপচয়ের কারখানা তৈরি না করে সেই টাকা যদি সোলার প্যানেলে ভর্তুকি দেয়া হোতো তাহলে আজ দেশের বিদ্যুৎ সমস্যা অনেকটাই মিটে যেতো। যাই কোন এক অদ্ভুত কারণে বাংলাদেশ সরকারের সোলারের প্রতি আগ্রহ একেবারেই কম। অথচ আমাদের মতো দেশের জন্য সোলার হতে পারতো বিদ্যুতের সবচাইতে ভালো উৎস। এখন বুঝতে পারছি সরকারের কাছ থেকে এই ব্যাপারে কোন পদক্ষেপ আশা করে লাভ নেই। নিজেদের বিদ্যুতের ব্যবস্থা হয়তো সামনে নিজেদেরকেই করতে হবে। এখন নিজেদের বিদ্যুৎ নিজেদের উৎপাদনের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়ার সময় চলে এসেছে।

আজকের মত এখানেই শেষ করছি। পরবর্তীতে আপনাদের সাথে দেখা হবে অন্য কোন নতুন লেখা নিয়ে। সে পর্যন্ত সবাই ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন।



ধন্যবাদ

Comments

Sort byBest